বাংলাদেশের প্রত্যেক ধর্মের মানুষের একই অধিকার

জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, “বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এখানে হাজার হাজার বছর ধরে নানা ধর্ম-বর্ণের মানুষ সম্প্রীতি নিয়ে বসবাস করছে। দেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে গেছে। বিভেদ এবং সংঘাত যে হয়নি তা নয়। সব মিলিয়ে যে সম্প্রীতির অবনতি হয়েছে, তা সত্তেও আমরা এর উপরে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রেখে সামনের দিকে অগ্রসর হয়েছি।” ইতিহাসের ধারাবাহিকতায় ধর্মনিরপেক্ষতাকে ১৯৭১ সালে […]

আরো পড়ুন

বিভাজন দূরের প্রত্যয়ে ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’

প্রবীণ সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরী বলেছেন, এই কৃত্রিম দেশভাগ টেকেনি। পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার এক বছরের ভেতর পূর্ব বাংলার বাঙালি রাজনৈতিকভাবে সচেতন হয়ে ওঠে এবং নিজেদের দাবি আদায়ে সোচ্চার হয়। লর্ড মাউন্টব্যাটেন ছিলেন পণ্ডিত নেহরুর বন্ধু। তিনি ছিলেন ভারতের শেষ বড়লাট। তিনি নেহরুকে এক চিঠিতে জানান, ‘আপনি দেশভাগ হওয়ার জন্য দুঃখ করবেন না। পাকিস্তান ২৫ বছরও টেকে […]

আরো পড়ুন

ধর্মের রাজনীতি রাজনীতির ধর্মকে হত্যা করে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, “ধর্মনিরপেক্ষতা ছাড়া কোনো গণতান্ত্রিক দেশ চলতে পারে না। রাষ্ট্রের সঙ্গে ধর্মের কোনো সম্পর্ক থাকবে না, রাষ্ট্র ধর্ম পালনে বাধা দিবে না এবং ধর্ম পালনে উৎসাহিতও করবে না। গণতান্ত্রিক দেশে এসব শর্ত মানতে হবে।” পুঁজিবাদী কাঠামোর কারণে এসব শর্ত থেকে বাংলাদেশ অনেক ‘দূরে সরে আছে’ মন্তব্য করে তিনি […]

আরো পড়ুন

সাম্যের বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠি ভারতের বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠি বলেন, ‘একজন চিকিৎসক হিসেবে আমি কেবল স্বাস্থ্য বিষয় নিয়েই কথা বলতে চাই। আর তা হলো ট্রান্সফরমিং হেলথকেয়ার। যেকোন দেশের জন্য স্বাস্থ্য অর্থনীতি একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। অনেক নীতি নির্ধারক মনে করেন, স্বাস্থ্যখাতের সঙ্গে জাতীয় উন্নয়নের সম্পর্কটা ওতপ্রোতভাবে জড়িত। আমার পর্যবেক্ষণে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের অর্থনীতির […]

আরো পড়ুন