সম্প্রীতির অনন্য নজির নবীনগর

বিশ্বজুড়ে সম্প্রীতি
শেয়ার করুন

অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের এক অনন্য নজির স্থাপন করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা। এখানে হিন্দু-মুসলমান মিলেমিশে একাকার। পূজা-পার্বণে হিন্দুবাড়িতে যেমন মুসলমানদের দাওয়াত থাকে, তেমনি মুসলমানদের ঈদে কিংবা ওরসেও থাকে হিন্দুদের নিমন্ত্রণ। কুমিল্লায় মন্দিরে পবিত্র কোরআন অবমাননার প্রতিবাদ করেছে হিন্দু-মুসলমান এককাতারে দাঁড়িয়ে।

দুর্গাপূজার সময় নবীনগরের প্রশাসন ও রাজনৈতিক দলের পাশাপাশি আলেমরা বিভিন্ন পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেছেন এবং দিয়েছেন নিরাপত্তার নিশ্চয়তা। হিন্দু সম্প্রদায় তাদের দুর্গাপূজা পালনের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেছে নির্বিঘ্নে।

নবীনগর সদরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ের কাছে একই আঙিনায় মন্দির ও মসজিদ পাশাপাশি অবস্থিত। ধর্ম পালনে কখনোই একে অন্যের সমস্যার কারণ হয়নি। মসজিদে হয় আজানের ধ্বনি, মন্দিরে বাজে ঘণ্টা। মসজিদে নামাজের সময় মন্দিরের কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়। নবীনগর পৌরসভার খাজানগর এলাকায় পাশাপাশি গড়ে ওঠা মুসলমানদের কবরস্থান ও হিন্দুদের শ্মশানঘাট। ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে মুসলমান ও হিন্দুদের মরদেহ যার যার ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী দাফন ও সৎকার করা হয়। পূজা ও রোজা একই সময়ে হলেও কোনো বিবাদ হয়নি। মুসলমানদের তারাবি নামাজের সময় মন্দিরে পূজার কার্যক্রম বন্ধ থাকে এবং পূজা উদযাপনে মুসলমানরা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়।

নবীনগর উপজেলার সাতমোড়া গ্রামের মহর্ষি মনমোহন দত্তের আনন্দ আশ্রমের কথা সবার জানা। মলয়াসংগীতের স্রষ্টা আধ্যাত্মিক সাধক মনমোহন দত্ত বাংলাদেশে সর্বধর্ম সমন্ব্বয় মতবাদের অন্যতম সাধক। সংগীতের বাণী, আত্মজীবনী ও উপদেশমূলক রচনা সংকলনের মাধ্যমে তিনি সারা ব্রিটিশ ভারতের মধ্যে ধর্মীয় সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় জীবন উৎসর্গ করেছিলেন। তাঁর মতবাদ ‘দয়াময়’ নামে স্বীকৃত। তাঁর এই আনন্দ আশ্রমকে কেন্দ্র করে নবীনগরে যেন সব ধর্ম-বর্ণের মানুষের মিলনমেলা গড়ে উঠেছে।

২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরকে কেন্দ্র করেও নবীনগরের অদূরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবলীলা দেখেছে সবাই। কিন্তু নবীনগরে কোনো বিশৃঙ্খল অবস্থার সৃষ্টি হয়নি। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতার সার্থকতা যেন এখানেই—

মোরা এক বৃন্তে দু’টি কুসুম হিন্দু মুসলমান

মুসলিম তার নয়নমণি, হিন্দু তাহার প্রাণ।

সৌজন্য: তৌফিকুর রহমান, কালের কণ্ঠ।
প্রকাশকাল: ১৩ জানুয়ারি, ২০২২।


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.