সংবাদ

শুভ বড়দিন

পীযূষ বন্দোপাধ্যায়, আহ্বায়ক, সম্প্রীতি বাংলাদেশ । আজকের এই পূর্ণ্যদিনে সবাইকে প্রীতি, শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানাই।  প্রভু যীশু ক্ষমা , প্রেম ও প্রীতির বানী প্রচার করেছেন জীবনভর । মানব সমাজের উদ্দেশ্যে বলেছেন বিশ্বের প্রতিপালক যিনি তিনিই সকলের পিতা, জগতের আয় সকলেই তাঁর সন্তান । তিনি আঘাতের প্রতিদানে আঘাত না করে অপরাধীকে ক্ষমা করার কথা বলেছেন । পরবর্তীকালে এবং সমকালে এই কথার গুরুত্ব ও মর্মার্থ কতটুকু বা কে বহন করে ! তাতে অবশ্য জগতের কিছুই এসে যায়নি । জগৎ টিকে আছে আপন মহিমায়, সমাজও বেঁচে থাকে আর আমাদের রবীন্দ্রনাথ লেখেন অন্তরের বিদ্বেষ বিষ বিনাশ করার পঙক্তি । প্রভু যীশুর জীবৎকালের আগে-পরে কেউ …
আরো পড়ুন

সম্প্রীতি সমাবেশ: ঘোষণাপত্র

বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার অপচেষ্টার প্রতিবাদে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অসাম্প্রদায়িক সংগঠন সমূহের অংশগ্রহণে সম্প্রীতি সমাবেশ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, ঢাকা ২৫ অক্টোবর ২০২১, সোমবার একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। কিন্তু সময়ের পরিবর্তনে অশুভ রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় দেশে জঙ্গিবাদ এবং সাম্প্রদায়িক শক্তি মাঝে মাঝে  মাথা চাড়া দিয়েছে। আর সে কারণেই আমাদের একত্রিত হওয়া প্রয়োজন। রাজনীতির পাশাপাশি সামাজিক সাংস্কৃতিক আন্দোলন না থাকলে সমাজকে আমরা একত্রিত করতে পারবো না। সবাই একত্রিত হতে পারলে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে মোকাবেলা করা কঠিন হবে না। ১৯৭৫ সালের রাজনৈতিক পটপরিবর্তন আমাদের সমাজ-মানসে যে নেতিবাচক পরিবর্তন এনেছে। পঁচাত্তর পরবর্তী বাংলাদেশের রাজনীতি অন্ধকারে চলে গিয়েছিল। দীর্ঘদিন অন্ধকারে থাকায় এই অশুভ …
আরো পড়ুন

সম্প্রীতি বাংলাদেশ এর বিবিধ কার্যক্রমের বিবরণ

সম্প্রীতি বাংলাদেশ তার নিয়মিত কার্যক্রমের সাথে জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর পরিবারের সদস্যদের শুভ জন্মদিন পালনের আয়োজন করে। সেখানে উপস্থিত থাকেন দেশের বরেণ্য গুনীজনেরা।
প্রত্যেক ধর্মের প্রধানগণ অনুষ্ঠানগুলোতে সম্প্রীতি বাংলাদেশ সম্মিলিত ভাবে অংশ গ্রহণ করে । যেমন, পবিত্র ঈদে শুভেচ্ছা বার্তা প্রেরণ, শারদীয় দূর্গোৎসবে মন্দির পরিদর্শন এবং সম্প্রীতির বার্তা সমন্বিত ব্যানার স্থাপন, প্রবারণা পূর্ণিমায় বৌদ্ধ মন্দির পরিদর্শন ও শুভেচ্ছা পৌছানো এবং বড় দিনের উৎসবে গীর্জায় গমন ও সম্প্রীতির শুভেচ্ছা বাণী প্রদান।
প্রাকৃতিক দুুর্যোগে বিপন্ন মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ এবং ঢাকা নগরীতে ডেঙ্গু বিরোধী সচেতনতা তৈরির অভিযানেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে একযোগে কাজ করাকে সম্প্রীতি বাংলাদেশ গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে।

আরো পড়ুন

এক মঞ্চে ধর্মীয় নেতারা, সম্প্রীতির ডাক

সব ধর্মের মানুষের দেশ গড়তে যে বাংলাদেশের জন্ম হয়েছিল, এক মঞ্চে উঠে বিভিন্ন ধর্মীয় নেতারা সেই লক্ষ্যে মাঠে নামতে সবাইকে ডাক দিলেন। ৭ জুলাই জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের উপস্থিতিতে সম্প্রীতি বাংলাদেশের আনুষ্ঠানিক যাত্রা অনুষ্ঠানে তারা এ ডাক দেন।
অনুষ্ঠানে বৌদ্ধ ধর্মীয় নেতা শুদ্ধানন্দ মহাথেরো বলেন, “আমরা বাঙালি। বাঙালিরা যদি মুসলমান, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান মিলে একসাথে কাজ করতে পারি তাহলে সম্প্রীতি বজায় থাকবে। কারণ আমরাতো এক ভাষায় কথা বলি। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করতে পারলে বাঙালিত্বও ফিরে আসবে।”
ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মো. আফজাল বলেন, “মদিনা সনদ সব ধর্মের সম্প্রীতির দৃষ্টান্ত; আর তার প্রতিফলন ঘটেছে বাহাত্তরের সংবিধানে। সব ধর্মের মানুষের …
আরো পড়ুন

সম্প্রীতি বাংলাদেশ-এর গোলটেবিল বৈঠকে বিশিষ্টজনদের অভিমত অসাম্প্রদায়িক, মানবিক বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ শুরু করতে হবে

সম্প্রীতি বাংলাদেশ আয়োজিত ‘সম্প্রীতির নির্বাচন, নতুন সরকার ও আগামী দিনের প্রত্যাশা’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় বিশিষ্টজনরা বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী অপশক্তিকে রুখে দিয়েছে বাংলাদেশ। এবারের নির্বাচনে নৌকার পক্ষে ১৯৭০ সালের মতো জাগরণ তৈরি হয়েছিল। সিরডাপ মিলনায়তনে ‘সম্প্রীতির নির্বাচন, নতুন সরকার ও আগামী দিনের প্রত্যাশা’ শীর্ষক এই গোলটেবিল আলোচনায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির আহব্বায়ক নাট্যজন পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়। আলোচনায় অংশ নেন সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, সাংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি অধ্যাপক মাহফুজা খানক, নারী নেত্রী রোকেয়া কবির, উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংগঠক আরমা দত্ত, অর্থনীতিবিদ আর এম দেবনাথ, সাবেক রাষ্ট্রদূত এ কে এম আতিকুর রহমান, …
আরো পড়ুন

‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ প্রথম মতবিনিময় সভা

‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গত ২৫ মার্চ ২০১৮ রবিবার, দুপুর একটার সময় রাজধানীতে প্রথম মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় দেশের গুণীজনেরা উপস্থিত ছিলেন।
সভার শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। কিন্তু স্বাধীনতার এতো বছর পরও দেশ সেই লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেনি। বরং জঙ্গিবাদ এবং সাম্প্রদায়িক শক্তি মাথা চাড়া দিয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে আমার মনে হয়েছে সম্প্রীতি বাংলাদেশের জন্য আমাদের একত্রিত হয়ে কাজ করা উচিত।’
মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মেজর জেনারেল এ কে মোহাম্মদ আলী শিকদার (অব.), ফিরোজ আহমেদ, সাংবাদিক বরুন ভৌমিক নয়ন, কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজী, সাংবাদিক সলিমউল্লাহ সেলিম, ডা. মামুন আল …
আরো পড়ুন