লক্ষ্য-উদ্দেশ্য

শতবর্ষের পথে বঙ্গবন্ধু ও সম্প্রীতির বাংলাদেশ

শতবর্ষের পথে বঙ্গবন্ধু ও সম্প্রীতির বাংলাদেশ ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ মরহুম শেখ লুৎফর রহমান ও সায়েরা খাতুনের ঘর আলো করে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ২০২০ সালের ১৭ মার্চ পূর্ণ হবে এই ক্ষণজন্মা মহামানবের ১০০ বছর । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর সরকার ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ, এই বছরটিকে মুজিববর্ষ হিসেবে ঘোষণা করেছেন। বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের জনগণের কাছে মুজিববর্ষের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম। তাছাড়া বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে থাকা অসংখ্য বাঙালি প্রস্তুত হয়েছে জাতির পিতার জন্ম শতবর্ষ পালনে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন ধর্ম বিশ্বাসে একজন প্রকৃত ধার্মিক। কিন্তু চেতনায় …
আরো পড়ুন

সম্প্রীতি সংলাপ

সম্প্রীতি সংলাপ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্টের পর বঙ্গবন্ধুর প্রিয় বাংলাদেশটাই যেন সাম্প্রদায়িক অপশক্তির অভয়ারণ্যে পরিনত হয়। মহান মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও ভাবমূর্তি ধ্বংসের নিষ্টুর খেলায় মেতে ওঠে ধর্মান্ধ বর্বরের দল। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় উগ্রবাদী ধর্মান্ধদের নৃশংতায় দিনে দিনে এতটাই ভয়ংকর হয়ে ওঠে যে প্রকৃত ধর্ম বিশ্বাসীরা ক্রমশ ভীত হতে থাকেন। দীর্ঘ ৬ বছর পরবাস জীবন কাটিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশে ফিরে দলের নেতৃত্ব গ্রহণ করলে শুভবাদী জনগোষ্ঠী যেন কিছুটা হাঁপ ছেড়ে বাঁচেন। কিন্তু উগ্রবাদীদের আস্ফালন সেই আগের মতই চলতে থাকে। সেই সাথে যুক্ত হয় জঙ্গীবাদের ভয়াবহ নিষ্টুরতা। বঙ্গবন্ধু ও তাঁর কন্যার অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে বিনষ্ট করতে দেশ জুড়ে বছরের পর বছর ধরে ঘটে …
আরো পড়ুন