‘পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের ধারাবাহিকতা ২১ আগস্ট’ শীর্ষক আলোচনা সভা

সম্প্রীতি কার্যক্রম-২
শেয়ার করুন

সোমবার (২২ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের ধারাবাহিকতা ২১ আগস্ট’ শীর্ষক এক আলোচনা সভার  আয়োজন করে সম্প্রীতি বাংলাদেশ। এসময় আলোচনায় অংশ নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া ২০০৪ সালে ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে গ্রেনেড হামলা ঘটনার বর্ণনা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু-কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যা করাই বিএনপি-জামায়াত জোটের একমাত্র লক্ষ্য বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। তিনি আরও বলেন, যত দিন বঙ্গবন্ধু হত্যার খুনিরা এদেশে থাকবে, ততদিন ষড়যন্ত্র থামবে না।

 

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মায়া বলেন, ‘পঁচাত্তরের বঙ্গবন্ধু হত্যার ধারবাহিকতায় ২০০৪ সালে শেখ হাসিনার ওপর গ্রেনেড হামলা হয়। বঙ্গবন্ধু-কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যা করাই বিএনপি-জামায়াত জোটের একমাত্র লক্ষ্য।’

যত দিন বঙ্গবন্ধু হত্যার খুনিরা এদেশে থাকবে, ততদিন ষড়যন্ত্র থামবে না বলে মন্তব্য করে মায়া বলেন, ‘এই অপশক্তি যেন বাংলাদেশের ক্ষমতায় আর কখনো আসতে না পারে সেদিকে সবাইকে নজর রাখতে হবে।’

আলোচনায় অংশ নেন সম্প্রীতি বাংলাদেশের যুগ্ম-আহ্বায়ক ও নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) মোহাম্মদ আলী শিকদার। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা বেঁচে থাকলে বাংলাদেশকে আবার পাকিস্তান বানানো যাবে না বলে একাত্তর-পঁচাত্তরের ষড়যন্ত্রকারীরা ২০০৪ সালে শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করে।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসীদের সঙ্গে নিয়ে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন সম্প্রীতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়।

সম্প্রীতি বাংলাদেশের সদস্য সচিব অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীলের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-অর-রশীদ, একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার তদন্ত কর্মকতা আব্দুল কাহার আকন্দ ও তরুণ রাজনীতিবিদ ড. রাশেক রহমান প্রমুখ।


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.