কার্যক্রম

সম্প্রীতি বাংলাদেশ পথচলার কথা

‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলার লক্ষ্যে গত কয়েকমাস ধরে আমরা ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মতবিনিময় সভা করেছি। রাজধানীতে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এসব মতবিনিময় সভায় এসে এই সংগঠনের গুরুত্ব তুলে ধরেছেন। এর বাইরে দেশের বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী, জ্যেষ্ঠ নাগরিকদের সঙ্গে আমরা ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ করে কথা বলেছি। সবার কথায় এটাই প্রতিফলিত হয়েছে যে, একটি অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। কিন্তু স্বাধীনতার এতো বছর পরও দেশ সেই লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেনি। বরং সময়ের পরিবর্তনে অশুভ রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতায় দেশে জঙ্গিবাদ এবং সাম্প্রদায়িক শক্তি মাথা চাড়া দিয়েছে। আর সে কারণেই আমাদের একত্রিত হওয়া প্রয়োজন। সম্প্রীতির সেই বাংলাদেশের জন্য একত্রিত হয়ে কাজ করা উচিত।
এসব …
আরো পড়ুন

সম্প্রীতি বাংলাদেশের কাজ

বিভাজন দূরের প্রত্যয় ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশের’ আত্মপ্রকাশ’
ধর্মনিরপেক্ষ চেতনার জাগরণের মাধ্যমে বিভাজন দূর করার প্রত্যয় নিয়ে আত্মপ্রকাশ করে নতুন সংগঠন ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’। গত ৭ জুলাই ২০১৮ শনিবার সকাল ১০টায় জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের উপস্থিতিতে সংগঠনের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়।
বেশ কিছু দিনের কাজের ধারাবাহিকতায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ধর্মের প্রতিনিধিসহ সমাজের নানা পেশার শীর্ষস্থানীয়দের এক মঞ্চে আনে সম্প্রতি বাংলাদেশ।
‘গাহি সাম্যের গান’ স্লোগান নিয়ে আসা এই নাগরিক ফোরামের উদ্দেশ্য তুলে ধরে অনুষ্ঠানে এর আহব্বায়ক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “মুক্তিযুদ্ধের যেই প্রধান চেতনা ‘ধর্মনিরপেক্ষতা’, সেটার দিকে আমরা ফিরে যেতে চাই। তাহলে আমরা ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশ, শোষণহীন বাংলাদেশ ও সাম্যের বাংলাদেশ গড়ে …
আরো পড়ুন

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে সম্প্রীতি সংলাপে বাংলাদেশকে দেবী শেঠির শুভেচ্ছা

দেবী শেঠি
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ‘সম্প্রীতি সংলাপ’ স্মারক বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ পর্বের বিষয় ছিল স্বাস্থ্য অর্থনীতি ও জাতীয় উন্নয়ন।
সম্প্রীতি বাংলাদেশ’র আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি।
অনুষ্ঠানে অংশ নেন ভারতের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠি, ইউজিসির সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, শহীদ জায়া ও শিক্ষাবিদ শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী ও সম্প্রীতি বাংলাদেশ’র সদস্য সচিব অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল।
সম্প্রীতি সংলাপের ৪৯তম পর্বের এ অনুষ্ঠানের শুরুতে সবাইকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা …
আরো পড়ুন

জুলাই ২০১৮ থেকে ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত কার্যক্রম

গত ৭ জুলাই আত্মপ্রকামের পর থেকে সম্প্রীতি বাংলাদেশ ঢাকায় নিয়মিত সেমিনার ও গোলটেবিল আলোচনার আয়োজন করেছে। এসব কার্যক্রমের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে নির্বাচন সামনে রেখে ‘পথ হারাবে না বাংলাদেশ’ সিরিজে সেমিনার ও গোলটেবিল আলোচনা। গত ২২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত প্রথম সেমিনারের বিষয় ছিল: ‘আসন্ন নির্বাচন : সম্প্রীতির বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে অংশ নিয়ে বিশিষ্টজনেরা এমন মন্তব্য করেন। এতে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন ভূ-রাজনীতি ও নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব) একে মোহাম্মদ আলী শিকদার। আলোচনায় অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য মো. আনোয়ার হোসেন, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহম্মদ …
আরো পড়ুন

ঢাকার বাইরে সম্প্রীতি সমাবেশ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে রাজধানীর বাইরে সম্প্রীতি সমাবেশ করে সম্প্রীতি বাংলাদেশ। সিলেট, শ্রীমঙ্গল, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, গাজীপুর, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, বগুড়ার সারিয়াকান্দি, নওগাঁ, যশোরের বেনাপোল, সাতক্ষীরা, ঝিনাইদহ ও মাগুরায় সম্প্রীতি সমাবেশের আয়োজন করে সম্প্রীতি বাংলাদেশ। পীযুষ বন্দ্যোপাধ্যায়, ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল, মেজর জেনারেল এ কে মোহাম্মদ আলী শিকদার (অব.), রাষ্ট্রদূত এ কে এম আতিকুর রহমান, সাংবাদিক মুহম্মদ শফিকুর রহমান ঢাকা থেকে এসব সমাবেশে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন। এছাড়া ঝিনাইদহের চারটি নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে কবির লড়াই ও পালাগানের আয়োজন করা হয়। গত ২৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলে এই পালাগানের আসর। …
আরো পড়ুন

এসব সভা-সমাবেশ, সেমিনার, গোলটেবিল আলোচনা ও সম্প্রীতি থেকে প্রাপ্তি

হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের ক্রমাগত নেতিবাচ প্রচারণার কারণে হতোদ্যম হয়ে পড়া ধর্মীয় সংক্যালঘুু সম্প্রদায় সম্প্রীতি বাংলাদেশ নতুন আশার বাণী নিয়ে গেছে। সমাজে, বিশেষ করে তরুণদের মধ্যে সম্প্রীতি বাংলাদেশ বিশেষ সাড়া জাগাতে পেরেছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আমরা প্রচুর সাড়া পাওয়া গেছে। ঢাকার বাইরে মানুষের মধ্যে বিপুল উৎসাহ লক্ষ করা গেছে। সম্প্রীতি বাংলাদেশ মনে করেছে, নির্বাচনের আগে ঘাপটি মেরে থাকা ধর্মান্ধ, সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখে দিতে সমাজের সর্বস্তরে ঐক্য প্রয়োজন ছিল। সেই ঐক্য গড়ে তোরার কাজটি সাফল্যের সঙ্গে করেছে সম্প্রীতি বাংরাদেশ। ধর্মের দোহাই দিয়ে যারা আমাদের মুক্তিযদ্ধের আদর্শ জলাঞ্জলি দিতে চায়, তাদের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে সর্বস্তরের মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেছে। নির্বাচনের আগে সম্প্রীতির বার্তা নিয়ে …
আরো পড়ুন